ডিসেম্বর আসলেই স্বাধীনতার চেতনা ভেসে যায়

আমরা বাঙ্গালী ডিসেম্বর আসলেই স্বাধীনতার চেতনায় জেগে উঠে। আমরা এই রকমই ২১ ফেব্রুয়ারি,  ২৬ শে মার্চ কিংবা ১৬ ই ডিসেম্বর আসলেই জাতীয় চেতনা নিজেকে গা ভাসিয়ে দেই।

আমাদের দেশ প্রেম ও আল্লাহ্‌ ভিরুতা এখন কারো মধ্যেই নেই। একটা চাকুরী নিতে টাকা দিতে হয়। দেশ প্রেম প্রতিটি কাজে থাকা দরকার।

একজন ডাক্তার যদি তার দায়িত্ব ঠিক মত পালন করেন । তাহলে দেশের মানুষ ডাক্তারকে মাথায় তুলে রাখতেন। একজন কৃষি কর্মকর্তা যদি কৃষকের দিকে খেয়াল করেন দেশ আরো  কৃষিতে ভরে উঠতো ।

সড়ক ও জনপদ বিভাগের ইঞ্জিনিয়ার যদি নিজের দায়িত্ব পালন করতেন আজ ভাঙ্গা রাস্তায় আমাদের চলতে হতো না ।

একজন ঠিকাদার যদি টাকার বিনিময় ছাড়া যদি কাজ পেতেন তাহলে আজ কোন কাজেই দুর্নীতি হতো না ।

যারা জাতীয় চেতনা নিজেকে গা ভাসিয়ে দেয় তারাই বেশি দুর্নীতি পরায়ন । এই আমার ব্যক্তিগত মতামত । আজ নেতা ছাড়া কোন কাজ হয় না । আমরা স্বাধীনের ৫০ বছরেও এই সমাজে ভাল কিছুই পাইনি ।

রাজনীতি শিখাচ্ছে ছাত্রদের অস্ত্র ধরা, মাদকের মধ্যে ঢুবে থাকা এবং আরো সব অন্যায় কাজ ।

যদি একজন শিক্ষক যদি টাকার বিনিয়মে চাকুরী নেন তাহলে কি শিখবে আমাদের ছাত্র সমাজ ।  ছাত্রদের ভাল শিক্ষা দেওয়ার মতন শিক্ষকের অভাব।

দুর্নীতি গ্রস্থ শিক্ষক আর জাতীয় চেতনার কি শিক্ষা দিবে বলুন তো?

আপনি কিংবা আমি এই গুলো নিয়ে চিন্তায় করছি না । কেননা আমাদের দেশ প্রেম এতটাই মজবুত শুধু দিবস আসলেই সোশ্যাল মিডিয়াতে লিখেই শেষ । কাজের বেলা কি দরকার আমি তো আমার মতন চলতে পারছি । অন্যের হলেই কি না হলেই কি ?

আমিও কিন্তু এই চেতনা  বাদের অংশ । আমরা সব কিছুই মেনে নিয়েছি। আর মেনে নিয়েছি বলেই আমাদের সামনে অন্যায় করার সাহস পাচ্ছে।

আমাদের পরির্বতন দরকার। প্রথমে আমাদের মানসিকতার পরিবর্তন করা দরকার।

Leave a Comment